উদ্বোধনের আর মাত্র
০০
দিন
০০
ঘণ্টা
০০
মিনিট
০০
সেকেন্ড

গুরুদাসপুরে ছাত্রদের বেদম বেত্রাঘাতের অভিযোগ শিক্ষকের বিরুদ্ধে

প্রকাশিত: জুন ২১, ২০২২, ০৮:০১ রাত
আপডেট: জুন ২১, ২০২২, ০৮:১১ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি: নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার কাছিকাটা স্কুল এন্ড কলেজে শ্রেণিকক্ষে বেয়াদবি করার অভিযোগ এনে ৮ম, ৯ম এবং ১০ম শ্রেণির ১২জন ছাত্রকে বেদম বেত্রাঘাত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে ধর্ম শিক্ষক আব্দুর রউফের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় প্রায় শতাধিক ছাত্ররা ওই শিক্ষকের বিচারের দাবিতে স্কুল মাঠে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে।

৯ম শ্রেণির ছাত্র মমিন, সোহাগ, তনয়সহ বেশ কয়েকজন জানায়, আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে নতুন ভবনের ক্লাসরুমে আমরা সবাই বসে আছি। এসময় হঠাৎ রউফ স্যার এসে আমাদের কয়েকজনকে বেদম বেত্রাঘাত করে। আমাদের শরীরের বিভিন্ন অংশ আঘাতে জখম হয়েছে। এসময় সরেজমিনে গিয়ে তাদের শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়। ১০ম শ্রেণির ছাত্র রাব্বি, ৯ম শ্রেণির নাঈম, ৮ম শ্রেণির নাহিদসহ কয়েকজন বলেন, গত সোমবার টেবিল ভাঙচুর করার মিথ্যা অভিযোগ তুলে আমাদেরকেও এই স্যার মারপিট করেছেন। বিভিন্ন সময়ে ক্লাসরুমে খারাপ ভাষা ব্যবহার করেন। মাঝে মধ্যেই রউফ স্যার বিভিন্ন ক্লাসের ছাত্রদের মারপিট করেন। প্রতিবাদ করলেই বেশি মারপিট করে। যেকোনো বিষয়ে ওই শিক্ষক ক্ষিপ্ত হয়ে ছাত্রদের মারপিট করা হয় বলে জানান আহত ছাত্রদের অভিভাবকরা।

অভিযুক্ত শিক্ষক আব্দুর রউফ বলেন, ৭ম শ্রেণির ছাত্রদের রুম থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ পাই ওই ছাত্রদের বিরুদ্ধে। ক্লাস রুমে গিয়ে সত্যতা পাওয়ায় তাদের শাসন করেছি মাত্র। কাছিকাটা স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ হাবিবুর রহমানের ফোনে একাধিক বার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তমাল হোসেন বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়