বগুড়ায় ২০ হাজার পিস ইয়াবা রাখার দায়ে জেল-জরিমানা

প্রকাশিত: জানুয়ারী ১৬, ২০২২, ০৯:১৭ রাত
আপডেট: জানুয়ারী ১৬, ২০২২, ০৯:১৭ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

কোর্ট রিপোর্টার: বগুড়ায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের মামলায় শহিদুল-মুক্তা দম্পতি সহ ৩ জনের জেল ও জরিমানা হয়েছে। বগুড়ার সিনিয়র দায়রা জজ নরেশ চন্দ্র সরকার এই মামলার রায় দেন।
রায়ে বগুড়া সদর উপজেলার শশিবদনী পুর্বপাড়ার বাসিন্দা আসামি শহিদুল ইসলাম আকন্দকে ৮ বছরের সশ্রম কারাদন্ড এবং তার স্ত্রী আসামী মুক্তা বেগম ওরফে খুকি ও শহিদুলের ভাই কামরুল হাসান ওরফে সেতুকে ৬ বছর করে সশ্রম কারাদন্ডদেশসহ তাদের প্রত্যেকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে তাদের প্রত্যেকে আরো ৬ মাস করে সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। সাজাপ্রাপ্ত আসামী শহিদুল ও সেতু ওই গ্রামের আব্দুস ছাত্তারের ছেলে।
উল্লেখ্য বগুড়া ডিবি পুলিশের এস আই আলমগীর হেসেন গত ২০১৭ সালের ২৫ ডিসেম্বর রাত ৯ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশের দল নিয়ে বগুড়ার কাহালু উপজেলার  কাহালু পশ্চিমপাড়ার জনৈক আব্দুর রশিদের বাড়ির পাশে রাস্তা হতে গ্রেফতার করে। এপর আসামি শহিদুলের কাছ হতে ১০ হাজার পিচ, কামরুলের কাছ হতে ৫ হাজার পিচ এবং মুক্তা ওরফে খুকির কাছ হতে ৫ হাজার পিচ ইয়াবা উদ্ধার করে। এব্যাপারে ডিবি এস আই আলমগীর হেসেন বাদি হয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে কাহালু থানায় মামলা দয়ের করেন। ডিবি এস আই মোঃ জুলহাস উদ্দিন মামলাটি তদন্ত শেষে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলাটি পরিচালনা করেন বাদি রাস্ট্র পক্ষে পিপি এড, মোঃ আব্দুল মতিন এবং আসামি পক্ষে এড. মোঃ ইয়াছিন আলী।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়