টাঙ্গুয়ার হাওরে নৌকার ভাড়া বাড়ালো ট্রলার মালিক সমিতি

Online Desk Online Desk
প্রকাশিত: ০৭:১৫ পিএম, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

টাঙ্গুয়ার হাওরে বেড়াতে আসা পর্যটকদের জন্য নৌকার ভাড়া নতুন করে নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে তাহিরপুর ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি আবিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূন কবির এ ভাড়া নির্ধারণ করেন। নতুন ভাড়ার তালিকা উপজেলা প্রশাসন নির্ধারিত ভাড়া থেকে বেশি ধরা হয়েছে।

নতুন ভাড়া তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে, তাহিরপুর ঘাট থেকে ওয়াচ টাওয়ার হয়ে ট্যাকেরঘাট হয়ে পুনরায় তাহিরপুর ঘাট পর্যন্ত ইঞ্জিনচালিত ছোট নৌকার (লম্বা ৩০ থেকে ৩৫ হাত) ভাড়া চার হাজার টাকা, ইঞ্জিনচালিত বড় নৌকার (কাঠবডি, লম্বা ৪০ থেকে ৪৫ হাত) ভাড়া আট হাজার টাকা, ইঞ্জিনচালিত নৌকা (স্টিলবডি, লম্বা ৪৫ থেকে ৫০ হাত) ভাড়া ১২ হাজার টাকা। শুধু একদিন টাঙ্গুয়ার হাওরে ঘুরলে ওই ভাড়া দিতে হবে। রাতযাপনের জন্য আলাদা টাকা গুনতে হবে।


খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দেশের দূর-দূরান্ত থেকে আসা পর্যটকরা টাঙ্গুয়ার হাওরে ঘুরতে যেতে চাইলে প্রথমে তাহিরপুর বাজার থেকে নৌকা ভাড়া করতে হয়। সেজন্য একটি সিন্ডিকেট আগে থেকে ছোট-বড় সব নৌকার ভাড়া নির্ধারণ করে। পর্যটকরা এলে তাদের বলা হয়, এটা সরকারের দেওয়া নির্ধারিত ভাড়া এবং ওই ভাড়া দিয়েই টাঙ্গুয়ার হাওরে ঘুরতে যেতে হবে। ফলে ছোট নৌকা নিয়ে একদিন টাঙ্গুয়ার হাওর, নিলাদ্রী ঘুরতে আট হাজার টাকা আর বড় নৌকা নিয়ে ঘুরতে ১৬ হাজার টাকা গুনতে হয়। দুদিন এক রাতযাপন করলে ২০ হাজার টাকা ও তিনদিন দুই রাতযাপন করলে ৩০ হাজার টাকা দিতে হয়।

এমন অভিযোগ পেয়ে তৎকালীন তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বিজেন ব্যার্নাজি নতুন করে ভাড়া নির্ধারণ করেন। তবে নির্ধারিত সেই ভাড়া মানেনি তাহিরপুর ট্রলার মালিক সমিতি। পর্যটকদের অভিযোগ, ট্রলার মালিকরা তাদের ইচ্ছেমতো পর্যটকদের কাছ থেকে ভাড়া আদায় করছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তাহিরপুর ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি আবিকুল ইসলাম  বলেন, আমরা পর্যটকদের জন্য একটি ভাড়া নির্ধারণ করেছিলাম কিন্তু সেটি বেশি হয়েছে বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমাদের জানিয়েছেন। তাই আমরা এখন ইউএনও স্যারের সঙ্গে বসে আবার নতুন ভাড়া নির্ধারণ করবো।

এর আগে তৎকালীন ইউএনও ভাড়া নির্ধারণ করে দিয়েছিলেন। সেটা আপনারা মানেননি, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি।


তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রায়হান কবির  বলেন, দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা পর্যটকদের কাছ থেকে দ্বিগুণ ভাড়া আদায়ের অভিযোগটি দীর্ঘদিনের। তবে গতকাল শুনেছি তাহিরপুর ট্রলার মালিক সমিতি ভাড়ার একটি তালিকা তাদের ইচ্ছেমতো প্রকাশ করেছে। তাদের নিয়ে বসে তালিকাটি আবার পরিবর্তন করা হবে।