আফিফ-মুশফিকদের ব্যাটে রান খরা কাটলো মিরপুরে

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৫:৫০ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০২০

আফিফ হোসেন ধ্রুব ২ রানের জন্য আক্ষেপে পুড়লেও নাজমুল একাদশের হাত ধরেই বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ এই প্রথম আড়াইশো ছাড়ানো ইনিংসের দেখা পেলো। আফিফ এবং মুশফিকুর রহিমের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের পর শেষ দিকে ইরফান শুক্কুর এবং তৌহিদ হৃদয়ের ব্যাটে লড়াকু পুঁজি পায় নাজমুল একাদশ।

নির্ধারিত ৫০ ওভারে নাজমুলদের সংগ্রহ ৮ উইকেট হারিয়ে ২৬৪ রান। এর আগে তিন ম্যাচে মাত্র একটিতে দুইশো পেরুনো ইনিংস ছিল। এই ম্যাচের শুরুতে টসে জিতে আগে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় মাহমুদউল্লাহ একাদশ।  ব্যাটিং করতে নামা নাজমুল একাদশকে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক বোলিংয়ে চাপে রেখেছিলেন রুবেল হোসেন।

ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে নিজের চতুর্থ বলেই সৌম্য সরকারকে ইনসাইড এজে বোল্ড করে বিদায় করেন তিনি। খানিক পর নাজমুল হোসেন শান্তকেও বোল্ড করেন রুবেল। দলীয় ২৭ রানে শান্ত ফেরেন ৩ রানে।

নবম ওভারে বোলিংয়ে এসে নিজের প্রথম ওভারেই পারভেজ হোসেন ইমনকে লেগ বিফরের ফাঁদে ফেলে বিদায় করেন সুমন খান। পঞ্চম উইকেটে মুশফিককে সঙ্গ দিতে আসেন আফিফ হোসেন।

৩১ রানে ৩ উইকেট হারালেও সেখান থেকে দলকে টেনে তুলেছেন আফিফ এবং মুশফিক। এই দুজনে চতুর্থ উইকেটে যোগ করেন ১৪৭ রান। ব্যক্তিগত ৯৮ রানে মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন আফিফ হোসেন ধ্রুব।
 
আফিফের ১০৭ বলের ইনিংসটি সাজানো ছিল ১২টি চার এবং একটি ছক্কায়। খানিক পরে মুশফিকও আউট হয়ে ফেরেন ৯৩ বলে ৫২ রান করে এবাদত হোসেনের বলে উইকেটের পেছনে নুরুল হাসান সোহানের হাতে ক্যাচ দিয়ে।

শেষদিকে দারুণ এক জুটি গড়ে নাজমুলদের সংগ্রহটাকে বড় করেন ইরফান শুক্কুর এবং তৈহিদ হৃদয়। ২৯ বলে ২৭ রান করে হৃদয় ফিরলে তাদের ৭০ রানের জুটি ভাঙে। রিশাদ কোনো রান যোগ না করেই ফেরেন রুবেলের বলে মেহেদী হাসান মিরাজকে ক্যাচ দিয়ে।

১ রান করে শেষদিকে রান আউট হয়ে ফেরেন তাসকিন আহমেদ। দারুণ ব্যাটিং করলেও অল্পের জন্য হাফ সেঞ্চুরি পাননি শুক্কুর। তিনি অপরাজিত থাকেন ৩১ বলে ৪৭ রানের ইনিংস খেলে। নাসুম অপরাজিত থাকেন কোনো রান না করেই।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: 

নাজমুল একাদশঃ ২৬৪/ (৫০ ওভার) (আফিফ ৯৮, মুশফিক ৫২, শুক্কু.৪৭, হৃদয় ২৭; রুবেল ৩/৫২, এবাদত ২/৬২) 


আরও পড়ুন