আফ্রিদিকে ছাড়িয়ে বিশ্বসেরা সাকিব

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৬:৫৫ পিএম, ২৪ অক্টোবর ২০২১

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে উইকেটের হিসাবে পাকিস্তানের কিংবদন্তি অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদিকে ছাড়িয়ে গেলেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান। বিশ্বকাপে আফ্রিদির ৩৯ উইকেট ছাড়িয়ে গিয়ে বাংলাদেশ অলরাউন্ডারের উইকেটসংখ্যা এখন ৪১।

রোববার (২৪ অক্টোবর) সুপার টুয়েলভে শ্রীলঙ্কার পাথুম নিশাঙ্কাকে আউট করেন তিনি। সাকিবের প্রথম বলটিই উড়িয়ে খেলতে গিয়ে মিডল স্টাম হারান নিশাঙ্কা। ফেরার আগে ২১ বলে ২৪ রান করেন লঙ্কান ওপেনার। ওভারের চতুর্থ বলে তিনি বোল্ড করেন আভিস্কা ফার্নান্দোকেও। এই ম্যাচে এখন পর্যন্ত ২ উইকেট নিতে ২ ওভারে ৬ রান দিয়েছেন বাংলাদেশ অলরাউন্ডার।

পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে ম্যাচে সাকিব সর্বোচ্চ উইকেটের হিসাবে শহীদ আফ্রিদিকে ধরেছিলেন। পিএনজির বিপক্ষে ৪ ওভারে মাত্র ৯ রান দিয়ে ৪ উইকেট তুলে নেন তিনি। আর তাতেই শহীদ আফ্রিদির সঙ্গে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যৌথভাবে সর্বোচ্চ ৩৯ উইকেটের মালিক বনে যান। তবে একটি জায়গায় এগিয়ে সাকিব। ৩৯ উইকেট পেতে আফ্রিদির লেগেছে ৩৪ ম্যাচ। সাকিব ২৮ ম্যাচেই তা ছুঁয়ে ফেলেছেন।

এর আগে তিনি টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে সর্বোচ্চ উইকেটের হিসাবে সাকিব টপকেছেন শ্রীলঙ্কার সাবেক পেস কিংবদন্তি লাসিথ মালিঙ্গাকে। মালিঙ্গার ১০৭ উইকেট টপকে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে সাকিবের উইকেট এখন ১১৫টি।
এবারের আসরে আরও কয়েকটি মাইলফলক অপেক্ষা করছে সাকিবের জন্য। দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ব্যাটার এবি ডি ভিলিয়ার্সকে পেছনে ফেলার সুযোগ রয়েছে তার সামনে। ফর্ম ধরে রাখতে পারলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রানের হিসাবে প্রোটিয়া কিংবদন্তিকে টপকে যাবেন বাংলাদেশ অলরাউন্ডার।

ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের বিশ্ব আসরে এবি ডি ভিলিয়ার্স করেছেন ৭১৭ রান। ৩০ ম্যাচের ২৯ ইনিংসে তিনি এই রান করেন, যার গড় ২৯.৮৭। সর্বোচ্চ রানের হিসাবে সাকিব আল হাসান এখন ৬৮৫ রান নিয়ে ভিলিয়ার্সের পরেই অবস্থান করছেন। ২৯ ম্যাচের ২৯ ইনিংসে সাকিবের গড় ২৮.৫৪। ভিলিয়ার্সের স্ট্রাইকরেট ১৪৩.৪০ হলেও সাকিবের স্ট্রাইকরেট ১২৬.৬১।

আরও পড়ুন: ধোনির কাছ থেকে টিকিটের আশায় পাকিস্তানি ভক্ত

পরিসংখ্যানের হিসাবে ভিলিয়ার্সের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে দুটি জায়গায়। এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ অলরাউন্ডারের সর্বোচ্চ রানের ইনিংসটি ৮৪। এবি ডির সবচেয়ে বড় স্কোরটি ৭৯। চার হাঁকানোর দিক দিয়েও ভিলিয়ার্সের চেয়ে এগিয়ে সাকিব। সাকিবের চার ৫৬টি হলেও ভিলিয়ার্স হাঁকিয়েছেন ৫১টি চার।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রানসংগ্রাহকদের মধ্যে সাকিব এখন ষষ্ঠ স্থানে। ভিলিয়ার্স ছাড়াও সাকিবের চেয়ে বেশি রান আছে মাহেলা জয়াবর্ধনে, ক্রিস গেইল, তিলকারত্নে দিলশান ও বিরাট কোহলির। মাহেলা জয়াবর্ধনের ১০১৬, ক্রিস গেইলের ৯২০, তিলকারত্নে দিলশানের ৮৯৭ ও বিরাট কোহলির নামের পাশে রয়েছে ৭৭৭ রান।


আরও পড়ুন