বিশ্বকাপ দলের ধারাবাহিকতার প্রতিক মুশফিকুর রহিম

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৭:৪২ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

ফারদিন আল সাজু

বাংলাদেশের ক্রিকেটের ডিপেন্ডেবল তিনি। বছর জুড়ে ঘাম ঝড়ানো এই ধারাবাহিক ব্যাটসম্যান অনেক ম্যাচ জিতেয়েছেন আবার ভিন্ন কারণে সমলোচানারও জম্ম দিয়েছেন । বিশ্বকাপ স্কোয়াডের ধারাবাহিক আয়োজনে আজ জানবো মুশফিকুর রহিমের বিশ্বকাপ প্রত্যাশা ।

বগুড়ার ছেলে মুশফিক। অনেকেই আবার আদর করে ডাকেন ময়না । বাংলাদেশ ক্রিকেটের পঞ্চপান্ডবের একজন। বাংলাদেশ ক্রিকেটের রঙ্গীন নক্ষত্র ও সবচেয় পরিশ্রিমী ক্রিকেটের। সারাবছর জুড়ে অন বা অফ সিজন হক মুশফিকে দেখা যাবে মিরপুরে ম্যাচ প্রকটিসে।

তিনি  বাংলাদেশের অভিজ্ঞ ও একজন টেকনিক সর্ম্পন্য ব্যাটম্যান। তামিমতো একদিন বলে বসেছেন আমার ছেলে ক্রিকেটার হতে হলে বলবো মুশফিকের মতো ক্রিকেটার হও।

মুশফিক যে আমাদের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান তার প্রমান তিনি অনেক বারই দিয়েছেন। আপনি মুশিফিকের কোন ইনিংসটি সেরা বলবেন ? ভাঙ্গা হাতে তামিমকে নিয়ে ক্যারিয়ারের ১৪৪ রানের সেরা ইনিংসটি। নাকি নিদাহাস ট্রফিতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রানের তাড়া  করে ম্যাচ জিতার ইনিংসটি। তার অনবদ্য ইনিংসের কথা বললে এক মহাকব্য লেখা যাবে।

স্কোয়াড় শর্ট আর সুইপ শর্ট খেলতে তিনি খুব পারাদশী। ব্যাট হাতে মাঠে নামলে প্রতিপক্ষ অধিনায়কের দুচিন্তা যেন তাকে নিয়ে আরো বেড়ে ।  

মুশফিক এবার সপ্তম বিশ্বকাপ খেলার জন্য প্রস্তুত। ২০০৭ সালে টি-২০ বিশ্বকাপ পরে সময়ের সাথে তিনি হয়েছেন আরো পরিনিত।

যদিও ২০১৬ টি-২০ বিশ্বকাপে ইন্ডিয়ার বিপক্ষে সেই তীরে এসে তরী ডুবানো সেই ম্যাচের অক্ষেপটা যেন এখন তার হৃদয় ক্ষত করে । তবে সেই আক্ষেপটাকে শক্তিতে রূপান্তর করতে হবে তাকে। ২০১৬ জবাবটা ব্যাট হতে দিতে হবে তাকে। বিশ্বমঞ্চ মুশফিকে লড়াই করতে হবে একটা বিশ্বকাপের জন্য। লড়াই করতে হবে ১৯৭১ সালে যেমন বীর সৈনিকরা পাকিস্তানির বিরুদ্বে  করেছিলো । পার্থক্য শুধু এটাই অস্ত্র নয় তাকে ব্যাট হাতে লড়াই করতে হবে।


আরও পড়ুন