পূজা উদ্বোধন করতে যাননি সাকিব

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৭:৪১ পিএম, ১৬ নভেম্বর ২০২০

গত ১২ নভেম্বর বেনাপোল হয়ে ভারত যাওয়ার পথে বেনাপোল বন্দর ইমিগ্রেশনে এক ভক্তের ফোন ভেঙেছিলেন সাকিব আল হাসান। এই ঘটনার জন্য এক ভিডিও বার্তায় ক্ষমা চেয়েছেন ওয়ানডে ক্রিকেটের এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

সেদিন বন্দরে সাকিবকে দেখেই তাঁর কাছে দৌড়ে গিয়ে ছবি তুলতে চেয়েছিলেন এক ভক্ত। তবে সাকিব তাঁকে সড়াতে গেলে ফোনটি পড়ে ভেঙে যায়। সাকিব সবাধানতার কারণে তাঁকে সরাতে চেয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে সাকিব বলেন, 'আমি কখনোই বুঝতে পারি না আমার আসলে অন্য একজনের ফোন ভেঙে কী উপকার হবো বা লাভ হবে। আপনারা হয়তো ভালো উত্তর দিতে পারবেন। যার ফোন ভাঙা নিয়ে কথা হচ্ছে। আমি তার ফোনটা কখনোই ইচ্ছেকৃতভাবে ভাঙিনি। যেহেতু করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার চেষ্টা করছিলাম। কীভাবে নিজেকে নিরাপদ রেখে চলা যায় সেটা চেষ্টা করছিলাম। যেহেতু অনেক মানুষ ছিল এবং ভীড় ছিল, সবাই চেষ্টা করছিল ছবি তুলতে। আমিও চেষ্টা করছিলাম কীভাবে তাদের কাছে না গিয়ে আমার কাজগুলো সম্পূর্ন করতে পারি ইমিগ্রেশনের।'

সাকিব যোগ করেন, 'স্বাভাবিকভাবে একজন উৎসুক জনতা একদম আমার শরীরের উপর দিয়ে এসে ছবি তুলতে চায়। আমি তাকে সরিয়ে দিতে গেলে তার হাতের সাথে আমার হাত লেগে ফোনটি পড়ে যায়। পরে হয়তো ভেঙেও যায়। তার ফোন ভাঙার জন্য আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত। কিন্তু আমার মনে হয় তারও সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত ছিল। আর এই করোনার সময়ে সবারই সেটা করা উচিত।'

ভারতে কালি পূজা উদ্বোধন নিয়েও কথা বলেছেন সাকিব। তিনি জানিয়েছেন, নিজেকে একজন গর্বিত মুসলমান মনে করেন তিনি। নিজের ভুলের জন্য সাকিব ক্ষমা চেয়েছেন। তাঁর কর্মকান্ডে কেউ যদি কষ্ট পান সেজন্যও ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন এই অলরাউন্ডার।

তাঁর ভাষ্য, 'অবশ্যই খুবই সেনসেটিভ। আমি প্রথমেই বলতে চাই আমি নিজেকে একজন গর্বিত মুসলমান হিসেবে মনে করি এবং আমি সেটাই চেষ্টা করি পালন করার। ভুল ত্রুটি হবেই এবং ভুল ত্রুটি নিয়েই আসলে আমরা চলাফেরা করি। আমার কোন ভুল হয়ে থাকলে অবশ্যই আমি আপনাদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছি এবং আপনাদের মনে কষ্ট দিয়ে থাকলে সেজন্যও আমি ক্ষমা প্রার্থনা করছি।'

সাকিব জানিয়েছেন তিনি কোনো পূজা উদ্বোধন করতে যাননি। পূজার কার্ড দেখিয়ে সেটা প্রমাণও করেছেন বাংলাদেশের এই অলরাউন্ডার। তিনি বলেন, 'এখন আসি আসলে পুজার বিষয়টি নিয়ে, পুজার বিষয়টি এখানে আসলে নিউজ, মিডিয়া কিংবা সোশ্যাল মিডিয়া সব জায়গায় এসেছে আমি পুজার উদ্বোধন করতে গিয়েছি। যেটা আসলে আমি কখনও আমি যাইও নি কিংবা করিও নি। এটির প্রমাণ আপনারা অবশ্যই পাবেন। যেটি হচ্ছে অনেক সাংবাদিক ভাই বোনেরাই সেখানে ছিলেন যাদেরকে হয়তো ইনভাইট করেছেন কিংবা আপনারা যদি সেখানের ইনভাইটেশন কার্ডটা দেখেন, কার্ডে লেখা আছে কে আসলে ওইটার উদ্বোধন করেছেন।'


আরও পড়ুন