বিদেশিদের মন্তব্য আ.লীগের মাথা ব্যথার কারণ হবে: আমির খসরু

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৫, ২০২২, ০৩:১১ দুপুর
আপডেট: নভেম্বর ২৫, ২০২২, ০৩:১১ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

ভবিষ্যতে বিদেশিদের মন্তব্য আওয়ামী লীগের জন্য আরও মাথাব্যথার কারণ হবে বলে মনে করছেন  বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।তিনি বলেন, বিদেশিদের মন্তব্য সরকারের মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সরকারের বিরুদ্ধে কূটনীতিকরা এখন বলছেন। এমনকি জাতিসংঘ এবং তাদের দেশ থেকেও বলছেন তারা। সরকারের বিরুদ্ধে বলার কারণে তাদের (আওয়ামী লীগ) মাথা ব্যথা হয়ে যাচ্ছে। শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) সকালে ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৮ তম জন্মদিন উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় এসব মন্তব্য করেন আমির খসরু।

জিয়া পরিষদ আয়োজিত ‘তারেক রহমানের ভাবনায় আগামীর বাংলাদেশ’ শীর্ষক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির এ সদস্য। আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু। আমির খসরু বলেন, আওয়ামী লীগের পক্ষে বিদেশিরা কথা বললে এগুলো আবার আমরা বারবার শুনতে পাই। বিপক্ষে হলে আর শোনা যায় না। এখন কিছুই তাদের পক্ষে আসছে না সবই তাদের বিরুদ্ধে যাচ্ছে। বিরুদ্ধে যাওয়ার মতন কাজ তারা করেছেন বলেই বলা হচ্ছে। এতে বিএনপির কোনো দোষ নাই। বিএনপির দিকে আঙ্গুল তুলে লাভ নেই।

কূটনৈতিকরা তাদের কাজ করছেন উল্লেখ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, কূটনীতিকদের দায়িত্ব বাংলাদেশে কি হয় না হয়, তা তাদের হেডকোয়ার্টার এ রিপোর্ট করা। আর সেই কাজটাই তারা করছেন। তাদের কাজের অংশ হচ্ছে এদেশের রাজনৈতিক অবস্থা কি, এদেশের মানবাধিকার ব্যবস্থা কেমন আছে। মানুষের অধিকারের কি ব্যবস্থা, বাক স্বাধীনতার কি হচ্ছে - এ সকল সার্বিক রিপোর্ট তাদের হেডকোয়ার্টারে পৌঁছানো। এ রিপোর্ট যদি তাদের করতে হয় তাহলে তো দেশের সাধারণ জনগণের সঙ্গে কথা বলতে হবে। কথা না বললে তো আর করা সম্ভব না।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিজেই বিএনপিকে নির্বাচনে আনার জন্য তদবির করছেন জানিয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ আপনাদের (আওয়ামী লীগ) ক্ষমতায় রাখার জন্য তদবির করছে। সয়ং পররাষ্ট্রমন্ত্রী যদি ভারতে গিয়ে বলতে পারে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখার জন্য। এটা কি বিএনপির দোষ? কূটনৈতিকদের ডেকে বিএনপি'র বিরুদ্ধে বিষোদাগার করেন যে, বিএনপি অগ্নিসন্ত্রাস। আবার আপনারাই তো বিএনপিকে নির্বাচনে ডাকেন, দাওয়াত দেন। আমরা তো বিএনপিকে ক্ষমতায় আনার জন্য বিদেশিদের কাছে কোন ধরনের তদবির করি না। সয়ং পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিজেই বিএনপিকে নির্বাচনে আনার জন্য বিদেশিদের কাছে তদবির করছেন।

তারেক রহমার প্রতি সপ্তাহেই পরিকল্পনা মিটিং করে যা দক্ষিণ এশিয়ায় কোন দল করে না বলে দাবি করেন আমির খসরু। তিনি বলেন, তারেক রহমান প্রত্যেক সপ্তাহেই বিএনপি স্ট্যান্ডিং কমিটির মিটিং করেন। তারেক রহমানের মতন দলকে এভাবে এত দূর থেকে অপারেট করে, আমার জানা মতে দক্ষিণ এশিয়ার এমন আর একটি দলও নেই। প্রতিদিন ৮-১০ ঘন্টা তৃণমূলের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এটা কোন দেশে হয়? এটাই যদি গণতন্ত্র না হয় তাহলে গনতন্ত্র কোনটাকে বলবেন।  

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়